চট্টগ্রামে করোনা আতংকে চসিক নির্বাচন স্থগিত

দৈনিক আজকালের দর্পন ডেস্ক: বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে চট্টগ্রাম সিটি করোপোরেশন (চসিক) নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনের উপ-নির্বাচনও স্থগিত করা হয়েছে। শনিবার (২১ মার্চ) দুপুর ১টার দিকে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনের সভাকক্ষে চসিক নির্বাচন স্থগিত হবে কি-না, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায় ২১ মার্চের পরে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থাকা পর্যন্ত আর কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে না দেশে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।  তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটির ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা ছিল। এ নির্বাচনে বৈধ ছয় প্রার্থী হলেন- আওয়ামী লীগের এম রেজাউল করিম চৌধুরী, বিএনপির শাহাদাত হোসেন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের এমএ মতিন, পিপলস পার্টির আবুল মনজুর, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের মুহাম্মদ ওয়াহেদ মুরাদ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. জান্নাতুল ইসলাম। এছাড়া কাউন্সিলর পদে ২ শতাধিক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রয়েছেন। ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করেছিল ইসি। এ সিটির মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ৫ আগস্ট। নির্বাচনী আইন অনুযায়ী, ৫ আগস্টের পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। অন্যদিকে, গত ১৮ জানয়ারি বগুড়া-১ আসন আর যশোর-৬ আসনটি শূন্য হয়েছে ২১ জানুয়ারি। সংবিধান অনুযায়ী, আসন শূন্য হওয়ার পরবর্তী নব্বই দিনের মধ্যে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এক্ষেত্রে বগুড়া-১ আসনে ১৬ এপ্রিল আর যশোহর-৬ আসনে ১৯ এপ্রিলের মধ্যে ভোটগ্রহণ করতে হবে। চট্টগ্রাম নগরজুড়ে যখন চলছিল নির্বাচনী হাওয়া ঠিক তখনি বিশ্বজুড়ে করোনার মহড়া। অবশেষে তচনছ করে দিয়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন স্থগিত করল চসিক। একদিকে করোনা আতংক অন্যদিকে নির্বাচন এই নিয়ে চট্টগ্রামবাসীর মধ্যে বয়ে যাচ্ছিল আতংক। অবশেষে সে আতংক থেকে রেহাই পেতে মুক্তি পেল চট্টগ্রামবাসী। যদিও নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। কিন্তু সেই নির্বাচনের পুন: নির্বাচনের তারিখ এখনো ঘোষণা না করায় নির্বাচন কর্তৃপক্ষ আগামী নিদের্শ না দেওয়া পর্যন্ত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ২৯ মার্চের নির্বাচন স্থগিতাদেশ দিয়েছেন চসিক। আর এ নির্দেশনাকেই ‍উভয় দলের সমর্থক ও মেয়ররা অভিনন্দন জানিয়েছেন। সম্প্রতি ইভিএম মেশিনেও করোনার ঝুঁকির পূর্বাবাস পেয়ে এ সিদ্ধান্ত চসিকের।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।