নেইমার না ফেরায় ‘প্রতারিত’ বার্সার খেলোয়াড়েরা

সবচেয়ে আলোচিত সম্ভাব্য দলবদলটা আলোচনার টেবিলেই থেকে গেল। ওদিকে শেষ হয়ে গেল ইউরোপে দলবদলের মৌসুম। নেইমারকে নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে থেকে যেতে হচ্ছে পিএসজিতে। আর সে জন্য মন খারাপ বার্সেলোনা ড্রেসিং রুমের। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’র প্রতিবেদন অনুযায়ী নেইমার না আসায় বার্সার মূল দলের বেশ কিছু খেলোয়াড় নিজেদের ‘প্রতারিত’ বলে মনে করছেন!

স্প্যানিশ, ইতালিয়ান ও ফরাসি ফুটবলে দলবদলের মৌসুম শেষ হয়েছে সোমবার রাতে। নেইমারের ফেরার আশায় ছিলেন বার্সার মূল দলের বেশির ভাগ খেলোয়াড় বিশেষ করে সিনিয়ররা। সুয়ারেজ, মেসি ও নেইমারকে নিয়ে আবারও ‘এমএসএন’ জুটির ঝলক দেখার অপেক্ষায় ছিলেন তারা। কিন্তু ব্রাজিলিয়ানকে ফেরানোর চেষ্টা চালিয়েও পিএসজির সঙ্গে আলোচনায় রফা করতে পারেনি বার্সা। আর তাই ভেস্তে যায় নেইমারকে ফেরানোর প্রক্রিয়া।

মার্কা জানিয়েছে, পিএসজিকে তারকাকে ফেরাতে সম্ভাব্য সব রকম চেষ্টা করার কথা বার্সা সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তোমেউ ও তাঁর বোর্ড সদস্যদের বলেছিলেন ক্লাবটির খেলোয়াড়েরা। বার্তোমেউয়ের বোর্ড শেষ পর্যন্ত তা করতে ব্যর্থ হওয়ায় বার্সার খেলোয়াড়েরা নিজেদের প্রতারিত বলেই মনে করছেন। নেইমারকে ফেরাতে বার্সা খুব একটা আগ্রহী ছিল না, মনে করছেন খেলোয়াড়েরা। আর দলবদলের মৌসুম চলাকালীন নেইমারকে কেনার ব্যাপারে বার্সার তোড় জোর ছিল স্রেফ লোক দেখানো, দলের খেলোয়াড়দের সন্তুষ্ট রাখার জন্য—এমনটাই মনে করছেন ক্লাবটির খেলোয়াড়েরা।

নেইমারকে কিনতে দলের বর্তমান স্কোয়াডে কয়েকজন খেলোয়াড়কে চুক্তিতে ব্যবহার করতে চেয়েছে বার্সা। ইভান রাকিতিচ তাঁদের একজন। দাম নিয়ে বেশ কয়েক ধাপের প্রস্তাবনায় বার্সার শেষ ধাপ ছিল—নগদ ১৩০ মিলিয়ন ইউরোর পাশাপাশি রাকিতিচ, জ্যাঁ ক্লাইর তোদিবোকে স্থায়ীভাবে দেবে বার্সা, পাশাপাশি ওসমানে ডেমবেলেকেও দেওয়া হবে ধারে। পিএসজি রাজি হয়নি। বার্সার এমন প্রস্তাবে রাকিতিচ অসন্তুষ্ট বলে জানিয়েছে মার্কা। কারণ তিনি বার্সাতেই থাকতে চান। আর ক্রোয়াট এ মিডফিল্ডার বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দেরও ওপরও খুশি নন। লা লিগায় বার্সার প্রথম ম্যাচে তাঁকে বাইরে রেখেই একাদশ গঠন করেছিলেন ভালভার্দে।

নগদ অর্থের ক্ষেত্রে পিএসজি কোনোভাবেই নেইমারের দাম ১৫০ মিলিয়ন ইউরোর নিচে নামাতে রাজি হয়নি। ঠিক এ পর্যায়ে এসে শেষ চেষ্টা করেছিলেন নেইমার নিজেই। নিজের ঝুলি থেকে বাকি ২০ মিলিয়ন ইউরো দিতে চেয়েছিলেন পিএসজিকে। পিএসজি এরপরও রাজি হয়নি। এ কারণে বার্সা ফরোয়ার্ড লুই সুয়ারেজ মনে করেন, ক্যাম্প ন্যুতে ফিরতে নিজের সর্বোচ্চটুকু নিংড়েই চেষ্টা করেছেন নেইমার। ২০১৭ সালে বার্সা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেন তিনি। সে প্রসঙ্গে ফক্স স্পোর্টস রেডিও আর্জেন্টিনাকে সুয়ারেজ বলেন, ‘তখন (২০১৭) এ নিয়ে কথা হয়েছিল। আমরা তাকে বলেছিলাম বার্সার চেয়ে ভালো জায়গা আর হয় না। কিন্তু পছন্দের ব্যাপারটি তার। আর এখন সে ফেরার জন্য সব রকম চেষ্টাই করেছে।’

তাহলে বার্সাই কি নেইমারকে কিনতে চায়নি?

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।