যৌনতায় ছড়ায় করোনাভাইরাস? নিষিদ্ধ পল্লী বন্ধ ঘোষণা

দৈনিক আজকালের দর্পন ডেস্ক : চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বজুড়ে। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ১৮০ টির বেশি দেশে হানা করোনা। বিশ্বব্যাপী এখন পর্যন্ত ১৪ হাজার ৬৫৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনা। এছাড়াও এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৩ লাখ ৩৭ হাজার ৫৫৩।  এদিকে, করোনা ভয়াবহ ঝুঁকির মুখে ফেলেছে বিশ্বকে। মরণঘাতীয় এ রোগের প্রাদুর্ভাবে স্থবিরতা নেমে এসেছে মানুষের জীবনযাত্রায়। করোনা সংক্রান্ত অনেক ভুল তথ্য ছড়াচ্ছে বাজারে। যৌনতায় করোনা ছড়ায় কিনা এ বিষয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।  প্রতিবেদন বলা হয়েছে, তিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জানিয়েছেন, যৌনতার মাধ্যমে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কোনো কেস এখনও তারা দেখতে পাননি। মূলত হাঁচি-কাশি থেকে যে ড্রপলেট বা কণা ছিটকে আসে তা থেকেই করোনা ছড়িয়ে পড়ে বলে প্রাথমিকভাবে দেখা গেছে। ডাক্তার জেসিকা জাস্টম্যানের মতে, সঙ্গমের মাধ্যমে করোনাভাইরাস সংক্রমণ হতে পারে না। তবে চুমু খাওয়ার সময় যে স্যালাইভা মুখ থেকে অন্য মুখে যায় তা থেকে করোনা ছড়ানোর আশঙ্কা রয়েছে। তবে কেউ সংক্রমিত হয়ে গেলে কোনোভাবেই সঙ্গম করবেন না। কারণ শারীরিক ছোঁয়া থেকে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। তবে যারা সুস্থ, যারা একেবারেই পরিবারের সঙ্গে স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে বা হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন তারা যৌনসঙ্গম করতেই পারেন। এদিকে ইতিমধ্যে করোনা ভাইরাসকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উদ্যোগে যৌন পল্লী বন্ধ রাখার নিদের্শ দেওয়া হয়েছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে এ সমস্ত ব্যবসায়ে জড়িতরা সরকারের আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলী  দেখিয়ে ঢাকা চট্টগ্রামের বিভিন্ন আবাসিক হোটেল রেস্তোরা ও বাসা বাড়ীতে এ সমস্ত যুবতী নারীদের রেখে কৌশলে এ সমস্ত যৌনতার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এ সমস্ত ব্যবসায়ীদের সাথে প্রশাসনের এক ধরনের অসাধু কর্মকর্তাদের সু-সম্পর্ক থাকার কারণে অপরাধীরা নির্ভয়ে করোনা ভাইরাসকে ডেঙ্গিয়ে গিয়ে প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে বার বার অপরাধ কর্মকান্ড ঘটিয়ে চলেছে।

শর্টলিংকঃ